রাত ১:০০ | শনিবার | ২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং | ৮ই আশ্বিন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

সামুদ্রিক মাছ বাঁচাবে হৃদরোগ থেকে

সামুদ্রিক মাছের পুষ্টিগুণ মিঠা পানির মাছের তুলনায় বেশি। সারা বছরই বিভিন্ন জাতের সামুদ্রিক মাছ বাজারে পাওয়া যায়। প্রজাতি ভেদে সামুদ্রিক মাছের স্বাদও ভিন্ন হয়। কিন্তু পুষ্টিগুণ বিচারে সব সামুদ্রিক মাছই অনন্য। বিশেষ করে হৃদযন্ত্রের জন্য উপকারী এই মাছে। কেননা, এতে আছে অমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড। এই ফ্যাটি এসিড হৃদরোগ প্রতিরোধে ভূমিকা রাখে। আসুন জেনে নেই সামুদ্রিক মাছের পুষ্টিগুণ।

দেহের প্রয়োজনীয় পুষ্টি চাহিদা মেটায় সামুদ্রিক মাছ। এই মাছের আমিষ সহজে পরিপাকযোগ্য। দেহের বৃদ্ধি ও ক্ষয়রোধেও সাহায্য করে। এছাড়াও ভিটামিন বি-এর উৎকৃষ্ট উৎস সামুদ্রিক মাছ। বিশেষ করে স্যামন মাছে প্রচুর পরিমানে ভিটামিন বি১২ আছে।

সামুদ্রিক মাছে আয়োডিন ও জিংক রয়েছে। আয়োডিন গলগণ্ড রোগ প্রতিরোধ করে। অন্যদিকে জিংক রোগ প্রতিরোধে ভূমিকা পালন করে। এই মাছে পাওয়া যায় প্রচুর

পরিমানে সিলেনিয়াম। এটি অ্যান্টি-অক্সিজেন্ট হিসেবে শরীরে কাজ করে।
সামুদ্রিক মাছ মানুষের হৃদযন্ত্র ও মস্তিষ্ককে কার্যকর ও সুরক্ষিত রাখতে বিরাট ভূমিকা পালন করে। সে জন্য চিকিৎসকেরা দীর্ঘ দিন ধরেই তাদের রোগীদের গোশতের

পরিবর্তে অধিক মাছ খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে আসছেন।

চিকিৎসক ও পুষ্টি বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন গোশতের চেয়ে সামুদ্রিক মাছ খাওয়ার উপকারিতা অনেক বেশি। বস্তুত সামুদ্রিক মাছ মানুষের স্বাস্থ্যরক্ষায় এক বিস্ময়কর

উপাদান। এজন্য তারা রোগীদের সামুদ্রিক মাছ খাওয়ার জন্য পরামর্শ দেন।

সামুদ্রিক মাছের মধ্যে থাকা উপাদানগুলো মানুষের হৃদযন্ত্র কার্যকর ও সুরক্ষিত রাখার জন্য কাজ করে। হৃদযন্ত্র অচল ও অকার্যকর হয়ে যাওয়ার যে ঝুঁকি প্রতিনিয়ত সৃষ্টি

হয় যেসব কারণে তার বিরুদ্ধে লড়াই করে মাছের উপাদানগুলো।

সামুদ্রিক মাছ কেবল আপনার হৃদযন্ত্রের জন্যই উপকারী নয়, এটা আপনার মস্তিষ্ককেরও সুরক্ষা দিয়ে থাকে। যারা সামুদ্রিক মাছ বেশি খান তাদের স্ট্রোকে আক্রান্ত হওয়ার

আশঙ্কা অনেকাংশে কমে যায়। বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে, এই কমে যাওয়ার হার প্রায় ৪০ শতাংশ। এ ছাড়া বিভিন্ন গবেষণা থেকে এটাও প্রমাণিত হয়েছে যে,

ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড মস্তিষ্কের স্বাভাবিক ও দৈনন্দিন কার্যক্রম পরিচালনায় সহায়তা করে থাকে।

বেশির ভাগ সামুদ্রিক মাছই ভিটামিন ‘এ’ ও ‘ডি’ এর অন্যতম উৎস। এই মাছ কোলেস্টেরলের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে। ডায়াবেটিস রোগীরা তাদের প্রতিদিনের খাদ্য

তালিকায় রাখতে পারেন সামুদ্রিক মাছ।

Comments

comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» আলফাডাঙ্গায় অপ্পো ব্র্যান্ড সপ এর উদ্বোধন

» মিরপুরে ৩টি ফার্মেসি সিলগালা

» আলফাডাঙ্গায় ছাত্রলীগ নেতা আশিকের মাগফেরাত কামনায় দোয়া

» মানবিক সাহায্যের আবেদন

» মাইজদীতে লাইসেন্স বিহীন ফার্মেসিতে জরিমানা ও মেয়াদোত্তীর্ণ ঔষধ জব্দ

» আলফাডাঙ্গায় সরকারের সাফল্য নিয়ে আলোচনা সভা

» রোহিঙ্গাদের হত্যার প্রতিবাদে আলফাডাঙ্গায় বিক্ষোভ

» আলফাডাঙ্গায় ইয়াবাসহ চার যুবক আটক

» ৭ ঘন্টা ধরে বিদ্যুৎ বিহীন আলফাডাংগাবাসী অন্ধকারে ও গরমে অতিষ্ঠ।

» শিগগির চালু হচ্ছে এভিয়েশন বিশ্ববিদ্যালয়: মেনন

» আলফাডাঙ্গার দলিল জালিয়াত চক্রের হোতা মোক্তার হোসেন,

» আলফাডাঙ্গা উপজেলার উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা জনাব মোঃ আজহারুল ইসলাম এর বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে।

» শ্রীবরদীতে ভেজাল ঔষুধ জব্দ ॥ ৪ ফার্মেসীর জরিমানা

» সাংসদ আব্দুর রহমানের একান্ত প্রচেস্টায় জাতীয়করণ হলো আলফাডাঙ্গা এ জেড পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়

» ঘন ঘন লোডশেডিংয়ের প্রতিবাদে আলফাডাঙ্গায় মানববন্ধন

সদস্য মণ্ডলী : –

উপদেষ্টা : ডা: রফিকুল ইসলাম বিজলী
আইন উপদেষ্টা : এ্যড জামাল হোসেন মুন্না
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুজাহিদুল ইসলাম নাঈম
সম্পাদক ও প্রকাশক : মাহির শাহরিয়ার শিশির
বার্তা সম্পাদক : সাহিদুল ইসলাম পলাশ ভুইয়া
নির্বাহী সম্পাদক : মনেম শাহরিয়ার শাওন

যোগাযোগ : –

সম্পাদকীয় কার্যালয় : ২৩/৩, তোপখানা রোড,
৪র্থ তালা, (পাক্ষিক অনিয়ম এর পাশে) ঢাকা-১০০০
09602111463, 01911717599, 01611354077
fb.com/bartakantho | Info@Bartakantho.com
প্রকাশনা : সানশাইন ক্রিয়েটিভ মিডিয়া লিমিটেড

Design & Devaloped BY Creation IT BD Limited

রাত ১:০০, ,

সামুদ্রিক মাছ বাঁচাবে হৃদরোগ থেকে

সামুদ্রিক মাছের পুষ্টিগুণ মিঠা পানির মাছের তুলনায় বেশি। সারা বছরই বিভিন্ন জাতের সামুদ্রিক মাছ বাজারে পাওয়া যায়। প্রজাতি ভেদে সামুদ্রিক মাছের স্বাদও ভিন্ন হয়। কিন্তু পুষ্টিগুণ বিচারে সব সামুদ্রিক মাছই অনন্য। বিশেষ করে হৃদযন্ত্রের জন্য উপকারী এই মাছে। কেননা, এতে আছে অমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড। এই ফ্যাটি এসিড হৃদরোগ প্রতিরোধে ভূমিকা রাখে। আসুন জেনে নেই সামুদ্রিক মাছের পুষ্টিগুণ।

দেহের প্রয়োজনীয় পুষ্টি চাহিদা মেটায় সামুদ্রিক মাছ। এই মাছের আমিষ সহজে পরিপাকযোগ্য। দেহের বৃদ্ধি ও ক্ষয়রোধেও সাহায্য করে। এছাড়াও ভিটামিন বি-এর উৎকৃষ্ট উৎস সামুদ্রিক মাছ। বিশেষ করে স্যামন মাছে প্রচুর পরিমানে ভিটামিন বি১২ আছে।

সামুদ্রিক মাছে আয়োডিন ও জিংক রয়েছে। আয়োডিন গলগণ্ড রোগ প্রতিরোধ করে। অন্যদিকে জিংক রোগ প্রতিরোধে ভূমিকা পালন করে। এই মাছে পাওয়া যায় প্রচুর

পরিমানে সিলেনিয়াম। এটি অ্যান্টি-অক্সিজেন্ট হিসেবে শরীরে কাজ করে।
সামুদ্রিক মাছ মানুষের হৃদযন্ত্র ও মস্তিষ্ককে কার্যকর ও সুরক্ষিত রাখতে বিরাট ভূমিকা পালন করে। সে জন্য চিকিৎসকেরা দীর্ঘ দিন ধরেই তাদের রোগীদের গোশতের

পরিবর্তে অধিক মাছ খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে আসছেন।

চিকিৎসক ও পুষ্টি বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন গোশতের চেয়ে সামুদ্রিক মাছ খাওয়ার উপকারিতা অনেক বেশি। বস্তুত সামুদ্রিক মাছ মানুষের স্বাস্থ্যরক্ষায় এক বিস্ময়কর

উপাদান। এজন্য তারা রোগীদের সামুদ্রিক মাছ খাওয়ার জন্য পরামর্শ দেন।

সামুদ্রিক মাছের মধ্যে থাকা উপাদানগুলো মানুষের হৃদযন্ত্র কার্যকর ও সুরক্ষিত রাখার জন্য কাজ করে। হৃদযন্ত্র অচল ও অকার্যকর হয়ে যাওয়ার যে ঝুঁকি প্রতিনিয়ত সৃষ্টি

হয় যেসব কারণে তার বিরুদ্ধে লড়াই করে মাছের উপাদানগুলো।

সামুদ্রিক মাছ কেবল আপনার হৃদযন্ত্রের জন্যই উপকারী নয়, এটা আপনার মস্তিষ্ককেরও সুরক্ষা দিয়ে থাকে। যারা সামুদ্রিক মাছ বেশি খান তাদের স্ট্রোকে আক্রান্ত হওয়ার

আশঙ্কা অনেকাংশে কমে যায়। বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে, এই কমে যাওয়ার হার প্রায় ৪০ শতাংশ। এ ছাড়া বিভিন্ন গবেষণা থেকে এটাও প্রমাণিত হয়েছে যে,

ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড মস্তিষ্কের স্বাভাবিক ও দৈনন্দিন কার্যক্রম পরিচালনায় সহায়তা করে থাকে।

বেশির ভাগ সামুদ্রিক মাছই ভিটামিন ‘এ’ ও ‘ডি’ এর অন্যতম উৎস। এই মাছ কোলেস্টেরলের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে। ডায়াবেটিস রোগীরা তাদের প্রতিদিনের খাদ্য

তালিকায় রাখতে পারেন সামুদ্রিক মাছ।

Comments

comments

সর্বশেষ আপডেট



এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সদস্য মণ্ডলী : –

উপদেষ্টা : ডা: রফিকুল ইসলাম বিজলী
আইন উপদেষ্টা : এ্যড জামাল হোসেন মুন্না
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুজাহিদুল ইসলাম নাঈম
সম্পাদক ও প্রকাশক : মাহির শাহরিয়ার শিশির
বার্তা সম্পাদক : সাহিদুল ইসলাম পলাশ ভুইয়া
নির্বাহী সম্পাদক : মনেম শাহরিয়ার শাওন

যোগাযোগ : –

সম্পাদকীয় কার্যালয় : ২৩/৩, তোপখানা রোড,
৪র্থ তালা, (পাক্ষিক অনিয়ম এর পাশে) ঢাকা-১০০০
09602111463, 01911717599, 01611354077
fb.com/bartakantho | Info@Bartakantho.com
প্রকাশনা : সানশাইন ক্রিয়েটিভ মিডিয়া লিমিটেড

Design & Devaloped BY Creation IT BD Limited