সকাল ১০:৩১ | বৃহস্পতিবার | ২৭শে জুলাই, ২০১৭ ইং | ১২ই শ্রাবণ, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

সামুদ্রিক মাছ বাঁচাবে হৃদরোগ থেকে

সামুদ্রিক মাছের পুষ্টিগুণ মিঠা পানির মাছের তুলনায় বেশি। সারা বছরই বিভিন্ন জাতের সামুদ্রিক মাছ বাজারে পাওয়া যায়। প্রজাতি ভেদে সামুদ্রিক মাছের স্বাদও ভিন্ন হয়। কিন্তু পুষ্টিগুণ বিচারে সব সামুদ্রিক মাছই অনন্য। বিশেষ করে হৃদযন্ত্রের জন্য উপকারী এই মাছে। কেননা, এতে আছে অমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড। এই ফ্যাটি এসিড হৃদরোগ প্রতিরোধে ভূমিকা রাখে। আসুন জেনে নেই সামুদ্রিক মাছের পুষ্টিগুণ।

দেহের প্রয়োজনীয় পুষ্টি চাহিদা মেটায় সামুদ্রিক মাছ। এই মাছের আমিষ সহজে পরিপাকযোগ্য। দেহের বৃদ্ধি ও ক্ষয়রোধেও সাহায্য করে। এছাড়াও ভিটামিন বি-এর উৎকৃষ্ট উৎস সামুদ্রিক মাছ। বিশেষ করে স্যামন মাছে প্রচুর পরিমানে ভিটামিন বি১২ আছে।

সামুদ্রিক মাছে আয়োডিন ও জিংক রয়েছে। আয়োডিন গলগণ্ড রোগ প্রতিরোধ করে। অন্যদিকে জিংক রোগ প্রতিরোধে ভূমিকা পালন করে। এই মাছে পাওয়া যায় প্রচুর

পরিমানে সিলেনিয়াম। এটি অ্যান্টি-অক্সিজেন্ট হিসেবে শরীরে কাজ করে।
সামুদ্রিক মাছ মানুষের হৃদযন্ত্র ও মস্তিষ্ককে কার্যকর ও সুরক্ষিত রাখতে বিরাট ভূমিকা পালন করে। সে জন্য চিকিৎসকেরা দীর্ঘ দিন ধরেই তাদের রোগীদের গোশতের

পরিবর্তে অধিক মাছ খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে আসছেন।

চিকিৎসক ও পুষ্টি বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন গোশতের চেয়ে সামুদ্রিক মাছ খাওয়ার উপকারিতা অনেক বেশি। বস্তুত সামুদ্রিক মাছ মানুষের স্বাস্থ্যরক্ষায় এক বিস্ময়কর

উপাদান। এজন্য তারা রোগীদের সামুদ্রিক মাছ খাওয়ার জন্য পরামর্শ দেন।

সামুদ্রিক মাছের মধ্যে থাকা উপাদানগুলো মানুষের হৃদযন্ত্র কার্যকর ও সুরক্ষিত রাখার জন্য কাজ করে। হৃদযন্ত্র অচল ও অকার্যকর হয়ে যাওয়ার যে ঝুঁকি প্রতিনিয়ত সৃষ্টি

হয় যেসব কারণে তার বিরুদ্ধে লড়াই করে মাছের উপাদানগুলো।

সামুদ্রিক মাছ কেবল আপনার হৃদযন্ত্রের জন্যই উপকারী নয়, এটা আপনার মস্তিষ্ককেরও সুরক্ষা দিয়ে থাকে। যারা সামুদ্রিক মাছ বেশি খান তাদের স্ট্রোকে আক্রান্ত হওয়ার

আশঙ্কা অনেকাংশে কমে যায়। বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে, এই কমে যাওয়ার হার প্রায় ৪০ শতাংশ। এ ছাড়া বিভিন্ন গবেষণা থেকে এটাও প্রমাণিত হয়েছে যে,

ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড মস্তিষ্কের স্বাভাবিক ও দৈনন্দিন কার্যক্রম পরিচালনায় সহায়তা করে থাকে।

বেশির ভাগ সামুদ্রিক মাছই ভিটামিন ‘এ’ ও ‘ডি’ এর অন্যতম উৎস। এই মাছ কোলেস্টেরলের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে। ডায়াবেটিস রোগীরা তাদের প্রতিদিনের খাদ্য

তালিকায় রাখতে পারেন সামুদ্রিক মাছ।

Views All Time
Views All Time
89
Views Today
Views Today
1

Comments

comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» অবশেষে ১৪ বছর পর আলফাডাংগা উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটি গঠনের উদ্যোগ

» রুবেল শেখের চিকিৎসার ভার নিলেন জাপানী ফারুক।

» রেলওয়ে ষ্টেশনের নাম পরিবর্তনের দাবীতে কাশিয়ানীতে মানববন্ধন

» আসছে মনেম এর “অপূর্ণতা” শর্ট ফিল্ম

» আলফাডাঙ্গার কাঞ্চন একাডেমি তে ইফতার মাহফিল ও অভিভাবক সমাবেশ।

» আলফাডাঙ্গায় ভয়াবহ বাস দুর্ঘটনা

» মাহে রমজানের পবিত্রতা রক্ষায় আলফাডাঙ্গায় র্যালী

» ৩য় বছরে মীরবাজার

» যক্ষ্মারোগ ও রোগীদের তথ্য সংরক্ষন বিষয়ে জাতীয় পর্যায়ে প্রশিক তৈরি বিষয়ক প্রশিক্ষক তৈরি

» আলফাডাঙ্গা অনলাইন প্রেসক্লাবের সাংগঠনিক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

» উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তার বিদায় সংবর্ধনা

» গোপালগঞ্জ পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের কম্পিউটার ল্যব লুট

» বন্দরে তিন ফার্মেসিকে জরিমানা

» ধেয়ে আসছে লোডশেডিং

» ইতিহাস গড়ার পথে বাহুবলী ২

উপদেষ্টা মন্ডলীর সভাপতি : ফারুক আহাম্মেদ (জাপানি ফারুক)
প্রধান উপদেষ্টা : আলহাজ কামরুল হক ভুইয়া
উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য : মো : কামরুজ্জামান কদর
প্রধান সম্পাদক : ইঞ্জিনিয়ার এম, এ, মালেক (জীবন)
সম্পাদক : মুজাহিদুল ইসলাম নাঈম
প্রকাশক : মাহির শাহরিয়ার শিশির
নির্বাহী সম্পাদক : মনেম শাহরিয়ার শাওন

কর্পোরেট অফিস ও বাণিজ্যিক কার্যালয় :
হাজি আসরাফ শপিং কমপ্লেক্স,
হেমায়েতপুর, সাভার, ঢাকা
ফোন : ০১৯১১৭১৭৫৯৯
ইমেইল : Info@Bartakantho.com
ফেসবুক পেজ : www.facebook.com/bartakantho
কারিগরি সসহায়তায় : ক্রিয়েশন আইটি বাংলাদেশ

Design & Devaloped BY Popular-IT.Com

,

সামুদ্রিক মাছ বাঁচাবে হৃদরোগ থেকে

সামুদ্রিক মাছের পুষ্টিগুণ মিঠা পানির মাছের তুলনায় বেশি। সারা বছরই বিভিন্ন জাতের সামুদ্রিক মাছ বাজারে পাওয়া যায়। প্রজাতি ভেদে সামুদ্রিক মাছের স্বাদও ভিন্ন হয়। কিন্তু পুষ্টিগুণ বিচারে সব সামুদ্রিক মাছই অনন্য। বিশেষ করে হৃদযন্ত্রের জন্য উপকারী এই মাছে। কেননা, এতে আছে অমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড। এই ফ্যাটি এসিড হৃদরোগ প্রতিরোধে ভূমিকা রাখে। আসুন জেনে নেই সামুদ্রিক মাছের পুষ্টিগুণ।

দেহের প্রয়োজনীয় পুষ্টি চাহিদা মেটায় সামুদ্রিক মাছ। এই মাছের আমিষ সহজে পরিপাকযোগ্য। দেহের বৃদ্ধি ও ক্ষয়রোধেও সাহায্য করে। এছাড়াও ভিটামিন বি-এর উৎকৃষ্ট উৎস সামুদ্রিক মাছ। বিশেষ করে স্যামন মাছে প্রচুর পরিমানে ভিটামিন বি১২ আছে।

সামুদ্রিক মাছে আয়োডিন ও জিংক রয়েছে। আয়োডিন গলগণ্ড রোগ প্রতিরোধ করে। অন্যদিকে জিংক রোগ প্রতিরোধে ভূমিকা পালন করে। এই মাছে পাওয়া যায় প্রচুর

পরিমানে সিলেনিয়াম। এটি অ্যান্টি-অক্সিজেন্ট হিসেবে শরীরে কাজ করে।
সামুদ্রিক মাছ মানুষের হৃদযন্ত্র ও মস্তিষ্ককে কার্যকর ও সুরক্ষিত রাখতে বিরাট ভূমিকা পালন করে। সে জন্য চিকিৎসকেরা দীর্ঘ দিন ধরেই তাদের রোগীদের গোশতের

পরিবর্তে অধিক মাছ খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে আসছেন।

চিকিৎসক ও পুষ্টি বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন গোশতের চেয়ে সামুদ্রিক মাছ খাওয়ার উপকারিতা অনেক বেশি। বস্তুত সামুদ্রিক মাছ মানুষের স্বাস্থ্যরক্ষায় এক বিস্ময়কর

উপাদান। এজন্য তারা রোগীদের সামুদ্রিক মাছ খাওয়ার জন্য পরামর্শ দেন।

সামুদ্রিক মাছের মধ্যে থাকা উপাদানগুলো মানুষের হৃদযন্ত্র কার্যকর ও সুরক্ষিত রাখার জন্য কাজ করে। হৃদযন্ত্র অচল ও অকার্যকর হয়ে যাওয়ার যে ঝুঁকি প্রতিনিয়ত সৃষ্টি

হয় যেসব কারণে তার বিরুদ্ধে লড়াই করে মাছের উপাদানগুলো।

সামুদ্রিক মাছ কেবল আপনার হৃদযন্ত্রের জন্যই উপকারী নয়, এটা আপনার মস্তিষ্ককেরও সুরক্ষা দিয়ে থাকে। যারা সামুদ্রিক মাছ বেশি খান তাদের স্ট্রোকে আক্রান্ত হওয়ার

আশঙ্কা অনেকাংশে কমে যায়। বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে, এই কমে যাওয়ার হার প্রায় ৪০ শতাংশ। এ ছাড়া বিভিন্ন গবেষণা থেকে এটাও প্রমাণিত হয়েছে যে,

ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড মস্তিষ্কের স্বাভাবিক ও দৈনন্দিন কার্যক্রম পরিচালনায় সহায়তা করে থাকে।

বেশির ভাগ সামুদ্রিক মাছই ভিটামিন ‘এ’ ও ‘ডি’ এর অন্যতম উৎস। এই মাছ কোলেস্টেরলের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে। ডায়াবেটিস রোগীরা তাদের প্রতিদিনের খাদ্য

তালিকায় রাখতে পারেন সামুদ্রিক মাছ।

Views All Time
Views All Time
89
Views Today
Views Today
1

Comments

comments

সর্বশেষ আপডেট



এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



উপদেষ্টা মন্ডলীর সভাপতি : ফারুক আহাম্মেদ (জাপানি ফারুক)
প্রধান উপদেষ্টা : আলহাজ কামরুল হক ভুইয়া
উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য : মো : কামরুজ্জামান কদর
প্রধান সম্পাদক : ইঞ্জিনিয়ার এম, এ, মালেক (জীবন)
সম্পাদক : মুজাহিদুল ইসলাম নাঈম
প্রকাশক : মাহির শাহরিয়ার শিশির
নির্বাহী সম্পাদক : মনেম শাহরিয়ার শাওন

কর্পোরেট অফিস ও বাণিজ্যিক কার্যালয় :
হাজি আসরাফ শপিং কমপ্লেক্স,
হেমায়েতপুর, সাভার, ঢাকা
ফোন : ০১৯১১৭১৭৫৯৯
ইমেইল : Info@Bartakantho.com
ফেসবুক পেজ : www.facebook.com/bartakantho
কারিগরি সসহায়তায় : ক্রিয়েশন আইটি বাংলাদেশ

Design & Devaloped BY Popular-IT.Com