রাত ১:০০ | শনিবার | ২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং | ৮ই আশ্বিন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

ফরিদপুরে আ.লীগের সংঘর্ষে আহত অর্ধশত, ভাঙচুর আগুন |

ফরিদপুরের সালথায় স্থানীয় আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে অর্ধশত আহত এবং বেশ কয়েকটি বাড়িতে ভাঙচুর ও আগুন দেয়া হয়েছে।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ ৫৬ রাউন্ড শটগানের গুলি ও আটটি কাঁদানে গ্যাসের শেল ছুড়েছে।

মঙ্গলবার সকাল থেকে বেলা আড়াইটা পর্যন্ত সালথা বাজার ও মদনদিয়া এলাকায় দফায় দফায় ওই সংঘর্ষ হয়।
সালথা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ কে এম আমিনুল হক বলেন, সোমবার রাতে সালথা বাজারে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাব্বির চোধুরীর সমর্থকদের সঙ্গে রামকান্তপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আলতাফ মোল্লার সমর্থকদের কথা-কাটাকাটি ও হাতাহাতি হয়। এরই জের ধরে মঙ্গলবার সকালে দুই পক্ষ দেশীয় অস্ত্র ঢাল-কাতরা, সড়কি-ভেলা, বল্লম-রামদা নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।
ওসি জানান, দুই পক্ষের সংঘর্ষ নিয়ন্ত্রণ করতে পুলিশ ৫৬ রাউন্ড শটগানের গুলি ও ৮টি কাঁদানে গ্যাসের শেল নিক্ষেপ করে। সংঘর্ষের সময় দুই পক্ষের কয়েকটি বাড়িঘরে ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করা হয়।

সংঘর্ষে নিজের জড়িত না থাকার দাবি করেন সালথা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাব্বির চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘আমাকে মারার জন্য সংসদ উপনেতার ছেলে আয়মন আকবর চৌধুরী তার কর্মীদের নির্দেশ দিয়েছেন। এ কারণে আমি এলাকায় থাকি না।’


আলতাফের লোকজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে সাব্বির চৌধুরী বলেন, ‘সোমবার রাতে আমার কিছু লোকের সঙ্গে আলতাফ মোল্লার (বাবলু চৌধুরীর সমর্থক) লোকদের কথা-কাটাকাটি হয়। মঙ্গলবার সকালে সালথা বাজারে আলতাফের লোকজন আমাদের লোকজনের ওপর হামলা করলে সংঘর্ষ শুরু হয়।’

অন্যদিকে আলতাফ মোল্লা দাবি করেন, ‘আগে থেকেই সাব্বির চৌধুরীর লোকজন আমাদের সঙ্গে  মারামারি করার জন্য প্রস্তুত ছিল। তারা পরিকল্পিতভাবে এ হামলার ঘটনা ঘটিয়েছে।’

জানা গেছে, সংঘর্ষে আহত লোকজনকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালসহ জেলার বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সংঘর্ষের পর আশপাশের এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে বলে জানান ওসি।

Comments

comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» আলফাডাঙ্গায় অপ্পো ব্র্যান্ড সপ এর উদ্বোধন

» মিরপুরে ৩টি ফার্মেসি সিলগালা

» আলফাডাঙ্গায় ছাত্রলীগ নেতা আশিকের মাগফেরাত কামনায় দোয়া

» মানবিক সাহায্যের আবেদন

» মাইজদীতে লাইসেন্স বিহীন ফার্মেসিতে জরিমানা ও মেয়াদোত্তীর্ণ ঔষধ জব্দ

» আলফাডাঙ্গায় সরকারের সাফল্য নিয়ে আলোচনা সভা

» রোহিঙ্গাদের হত্যার প্রতিবাদে আলফাডাঙ্গায় বিক্ষোভ

» আলফাডাঙ্গায় ইয়াবাসহ চার যুবক আটক

» ৭ ঘন্টা ধরে বিদ্যুৎ বিহীন আলফাডাংগাবাসী অন্ধকারে ও গরমে অতিষ্ঠ।

» শিগগির চালু হচ্ছে এভিয়েশন বিশ্ববিদ্যালয়: মেনন

» আলফাডাঙ্গার দলিল জালিয়াত চক্রের হোতা মোক্তার হোসেন,

» আলফাডাঙ্গা উপজেলার উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা জনাব মোঃ আজহারুল ইসলাম এর বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে।

» শ্রীবরদীতে ভেজাল ঔষুধ জব্দ ॥ ৪ ফার্মেসীর জরিমানা

» সাংসদ আব্দুর রহমানের একান্ত প্রচেস্টায় জাতীয়করণ হলো আলফাডাঙ্গা এ জেড পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়

» ঘন ঘন লোডশেডিংয়ের প্রতিবাদে আলফাডাঙ্গায় মানববন্ধন

সদস্য মণ্ডলী : –

উপদেষ্টা : ডা: রফিকুল ইসলাম বিজলী
আইন উপদেষ্টা : এ্যড জামাল হোসেন মুন্না
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুজাহিদুল ইসলাম নাঈম
সম্পাদক ও প্রকাশক : মাহির শাহরিয়ার শিশির
বার্তা সম্পাদক : সাহিদুল ইসলাম পলাশ ভুইয়া
নির্বাহী সম্পাদক : মনেম শাহরিয়ার শাওন

যোগাযোগ : –

সম্পাদকীয় কার্যালয় : ২৩/৩, তোপখানা রোড,
৪র্থ তালা, (পাক্ষিক অনিয়ম এর পাশে) ঢাকা-১০০০
09602111463, 01911717599, 01611354077
fb.com/bartakantho | Info@Bartakantho.com
প্রকাশনা : সানশাইন ক্রিয়েটিভ মিডিয়া লিমিটেড

Design & Devaloped BY Creation IT BD Limited

রাত ১:০০, ,

ফরিদপুরে আ.লীগের সংঘর্ষে আহত অর্ধশত, ভাঙচুর আগুন |

ফরিদপুরের সালথায় স্থানীয় আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে অর্ধশত আহত এবং বেশ কয়েকটি বাড়িতে ভাঙচুর ও আগুন দেয়া হয়েছে।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ ৫৬ রাউন্ড শটগানের গুলি ও আটটি কাঁদানে গ্যাসের শেল ছুড়েছে।

মঙ্গলবার সকাল থেকে বেলা আড়াইটা পর্যন্ত সালথা বাজার ও মদনদিয়া এলাকায় দফায় দফায় ওই সংঘর্ষ হয়।
সালথা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ কে এম আমিনুল হক বলেন, সোমবার রাতে সালথা বাজারে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাব্বির চোধুরীর সমর্থকদের সঙ্গে রামকান্তপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আলতাফ মোল্লার সমর্থকদের কথা-কাটাকাটি ও হাতাহাতি হয়। এরই জের ধরে মঙ্গলবার সকালে দুই পক্ষ দেশীয় অস্ত্র ঢাল-কাতরা, সড়কি-ভেলা, বল্লম-রামদা নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।
ওসি জানান, দুই পক্ষের সংঘর্ষ নিয়ন্ত্রণ করতে পুলিশ ৫৬ রাউন্ড শটগানের গুলি ও ৮টি কাঁদানে গ্যাসের শেল নিক্ষেপ করে। সংঘর্ষের সময় দুই পক্ষের কয়েকটি বাড়িঘরে ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করা হয়।

সংঘর্ষে নিজের জড়িত না থাকার দাবি করেন সালথা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাব্বির চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘আমাকে মারার জন্য সংসদ উপনেতার ছেলে আয়মন আকবর চৌধুরী তার কর্মীদের নির্দেশ দিয়েছেন। এ কারণে আমি এলাকায় থাকি না।’


আলতাফের লোকজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে সাব্বির চৌধুরী বলেন, ‘সোমবার রাতে আমার কিছু লোকের সঙ্গে আলতাফ মোল্লার (বাবলু চৌধুরীর সমর্থক) লোকদের কথা-কাটাকাটি হয়। মঙ্গলবার সকালে সালথা বাজারে আলতাফের লোকজন আমাদের লোকজনের ওপর হামলা করলে সংঘর্ষ শুরু হয়।’

অন্যদিকে আলতাফ মোল্লা দাবি করেন, ‘আগে থেকেই সাব্বির চৌধুরীর লোকজন আমাদের সঙ্গে  মারামারি করার জন্য প্রস্তুত ছিল। তারা পরিকল্পিতভাবে এ হামলার ঘটনা ঘটিয়েছে।’

জানা গেছে, সংঘর্ষে আহত লোকজনকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালসহ জেলার বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সংঘর্ষের পর আশপাশের এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে বলে জানান ওসি।

Comments

comments

সর্বশেষ আপডেট



এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সদস্য মণ্ডলী : –

উপদেষ্টা : ডা: রফিকুল ইসলাম বিজলী
আইন উপদেষ্টা : এ্যড জামাল হোসেন মুন্না
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুজাহিদুল ইসলাম নাঈম
সম্পাদক ও প্রকাশক : মাহির শাহরিয়ার শিশির
বার্তা সম্পাদক : সাহিদুল ইসলাম পলাশ ভুইয়া
নির্বাহী সম্পাদক : মনেম শাহরিয়ার শাওন

যোগাযোগ : –

সম্পাদকীয় কার্যালয় : ২৩/৩, তোপখানা রোড,
৪র্থ তালা, (পাক্ষিক অনিয়ম এর পাশে) ঢাকা-১০০০
09602111463, 01911717599, 01611354077
fb.com/bartakantho | Info@Bartakantho.com
প্রকাশনা : সানশাইন ক্রিয়েটিভ মিডিয়া লিমিটেড

Design & Devaloped BY Creation IT BD Limited