রাত ১২:৫৫ | শনিবার | ২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং | ৮ই আশ্বিন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

মুক্তিযোদ্ধাদের কেউ কেউ স্বাধীনতাবিরোধীদের পক্ষাবলম্বন করেছে’

মুক্তিযুদ্ধে বীরত্বগাথা ভূমিকা পালনকারীদের কেউ কেউ পরবর্তী জীবনে স্বাধীনতাবিরোধীদের পক্ষাবলম্বন করেছেন বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী।

আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীর রমনা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট সেমিনার কক্ষে জাসদ আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এ অভিযোগ করেন।

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধে যারা বীরত্বগাথা ভূমিকা রেখেছিলেন, তাদের পরবর্তী সময়ের ভূমিকা সম্পর্কেও আমাদের সচেতন থাকতে হবে। অনেকেই মুক্তিযুদ্ধে বীরত্বপূর্ণ অবদান রাখলেও পরবর্তী জীবনে তারা স্বাধীনতাবিরোধীদের পক্ষ অবলম্বন করেছে। মুক্তিযুদ্ধের ধারাকে দুর্বল করার চেষ্টা করেছে। এদেরকেও চিহ্নিত করতে হবে।’

আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, শেখ হাসিনা মুক্তিযুদ্ধের ধারাকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন। এই নেতৃত্বের মধ্য দিয়েই বঙ্গবন্ধু স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে তোলা সম্ভব। মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তির ঐক্যকে আরো বেশি ইস্পাতকঠিন করতে হবে।

খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ১৯৭১ সালের স্বাধীনতাবিরোধী, রাজাকার, আলবদর বাহিনী যে গণহত্যা সংঘঠিত করেছিল, তাদের বিচারের জন্য বঙ্গবন্ধু সরকার ৭৩টি ট্রাইবুন্যাল গঠন করেছিলেন। বিচার কার্যক্রম শুরু হয়েছিল। দুর্ভাগ্য ষড়যন্ত্রকারীরা বঙ্গবন্ধুকেও হত্যা করল। সেটাও ছিল একটা গণহত্যা। জিয়াউর রহমান সেনাবাহিনীর হাজার হাজার সৈনিক হত্যা ও রাজনৈতিককর্মীদের হত্যার মধ্য দিয়ে গণহত্যার ধারাবাহিকতা অব্যাহত রেখেছিলেন।

আওয়ামী লীগের এই সাংগঠনিক সম্পাদক বলেন, সামরিক সরকারগুলোও গণহত্যা চালিয়েছে। ’৯১ ও ২০০১ সালে এবং ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট গণহত্যা চালানো হয়েছিল। সর্বশেষ যুদ্ধাপরাধীদের বিচার ঠেকানোর জন্য সারা দেশে এবং পরপর দুবার মানুষ পুড়িয়ে তারা গণহত্যার ধারাবাহিকতা অব্যাহত রেখেছিল। গণহত্যা দিবস হওয়ায় নতুন প্রজন্ম ইতিহাস জানতে পারবে। বিচারের মধ্য দিয়ে গণহত্যাকারীদের প্রতিহত করতে হবে।

জাসদের সহসভাপতি মীর হোসাইন আখতারের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন বেসামরিক বিমান ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন। সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া, জাসদের একাংশের সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার, একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি শাহরিয়ার কবির, সেক্টরস কমান্ডার ফোরামের মহাসচিব হারুন হাবিব, জাসদ স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আনোয়ার হোসেন জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি শফিকুর রহমান, গণতন্ত্রী পার্টির সাধারণ সম্পাদক ডা. শাহদাত হোসেন প্রমুখ।

Comments

comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» আলফাডাঙ্গায় অপ্পো ব্র্যান্ড সপ এর উদ্বোধন

» মিরপুরে ৩টি ফার্মেসি সিলগালা

» আলফাডাঙ্গায় ছাত্রলীগ নেতা আশিকের মাগফেরাত কামনায় দোয়া

» মানবিক সাহায্যের আবেদন

» মাইজদীতে লাইসেন্স বিহীন ফার্মেসিতে জরিমানা ও মেয়াদোত্তীর্ণ ঔষধ জব্দ

» আলফাডাঙ্গায় সরকারের সাফল্য নিয়ে আলোচনা সভা

» রোহিঙ্গাদের হত্যার প্রতিবাদে আলফাডাঙ্গায় বিক্ষোভ

» আলফাডাঙ্গায় ইয়াবাসহ চার যুবক আটক

» ৭ ঘন্টা ধরে বিদ্যুৎ বিহীন আলফাডাংগাবাসী অন্ধকারে ও গরমে অতিষ্ঠ।

» শিগগির চালু হচ্ছে এভিয়েশন বিশ্ববিদ্যালয়: মেনন

» আলফাডাঙ্গার দলিল জালিয়াত চক্রের হোতা মোক্তার হোসেন,

» আলফাডাঙ্গা উপজেলার উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা জনাব মোঃ আজহারুল ইসলাম এর বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে।

» শ্রীবরদীতে ভেজাল ঔষুধ জব্দ ॥ ৪ ফার্মেসীর জরিমানা

» সাংসদ আব্দুর রহমানের একান্ত প্রচেস্টায় জাতীয়করণ হলো আলফাডাঙ্গা এ জেড পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়

» ঘন ঘন লোডশেডিংয়ের প্রতিবাদে আলফাডাঙ্গায় মানববন্ধন

সদস্য মণ্ডলী : –

উপদেষ্টা : ডা: রফিকুল ইসলাম বিজলী
আইন উপদেষ্টা : এ্যড জামাল হোসেন মুন্না
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুজাহিদুল ইসলাম নাঈম
সম্পাদক ও প্রকাশক : মাহির শাহরিয়ার শিশির
বার্তা সম্পাদক : সাহিদুল ইসলাম পলাশ ভুইয়া
নির্বাহী সম্পাদক : মনেম শাহরিয়ার শাওন

যোগাযোগ : –

সম্পাদকীয় কার্যালয় : ২৩/৩, তোপখানা রোড,
৪র্থ তালা, (পাক্ষিক অনিয়ম এর পাশে) ঢাকা-১০০০
09602111463, 01911717599, 01611354077
fb.com/bartakantho | Info@Bartakantho.com
প্রকাশনা : সানশাইন ক্রিয়েটিভ মিডিয়া লিমিটেড

Design & Devaloped BY Creation IT BD Limited

রাত ১২:৫৫, ,

মুক্তিযোদ্ধাদের কেউ কেউ স্বাধীনতাবিরোধীদের পক্ষাবলম্বন করেছে’

মুক্তিযুদ্ধে বীরত্বগাথা ভূমিকা পালনকারীদের কেউ কেউ পরবর্তী জীবনে স্বাধীনতাবিরোধীদের পক্ষাবলম্বন করেছেন বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী।

আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীর রমনা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট সেমিনার কক্ষে জাসদ আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এ অভিযোগ করেন।

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধে যারা বীরত্বগাথা ভূমিকা রেখেছিলেন, তাদের পরবর্তী সময়ের ভূমিকা সম্পর্কেও আমাদের সচেতন থাকতে হবে। অনেকেই মুক্তিযুদ্ধে বীরত্বপূর্ণ অবদান রাখলেও পরবর্তী জীবনে তারা স্বাধীনতাবিরোধীদের পক্ষ অবলম্বন করেছে। মুক্তিযুদ্ধের ধারাকে দুর্বল করার চেষ্টা করেছে। এদেরকেও চিহ্নিত করতে হবে।’

আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, শেখ হাসিনা মুক্তিযুদ্ধের ধারাকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন। এই নেতৃত্বের মধ্য দিয়েই বঙ্গবন্ধু স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে তোলা সম্ভব। মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তির ঐক্যকে আরো বেশি ইস্পাতকঠিন করতে হবে।

খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ১৯৭১ সালের স্বাধীনতাবিরোধী, রাজাকার, আলবদর বাহিনী যে গণহত্যা সংঘঠিত করেছিল, তাদের বিচারের জন্য বঙ্গবন্ধু সরকার ৭৩টি ট্রাইবুন্যাল গঠন করেছিলেন। বিচার কার্যক্রম শুরু হয়েছিল। দুর্ভাগ্য ষড়যন্ত্রকারীরা বঙ্গবন্ধুকেও হত্যা করল। সেটাও ছিল একটা গণহত্যা। জিয়াউর রহমান সেনাবাহিনীর হাজার হাজার সৈনিক হত্যা ও রাজনৈতিককর্মীদের হত্যার মধ্য দিয়ে গণহত্যার ধারাবাহিকতা অব্যাহত রেখেছিলেন।

আওয়ামী লীগের এই সাংগঠনিক সম্পাদক বলেন, সামরিক সরকারগুলোও গণহত্যা চালিয়েছে। ’৯১ ও ২০০১ সালে এবং ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট গণহত্যা চালানো হয়েছিল। সর্বশেষ যুদ্ধাপরাধীদের বিচার ঠেকানোর জন্য সারা দেশে এবং পরপর দুবার মানুষ পুড়িয়ে তারা গণহত্যার ধারাবাহিকতা অব্যাহত রেখেছিল। গণহত্যা দিবস হওয়ায় নতুন প্রজন্ম ইতিহাস জানতে পারবে। বিচারের মধ্য দিয়ে গণহত্যাকারীদের প্রতিহত করতে হবে।

জাসদের সহসভাপতি মীর হোসাইন আখতারের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন বেসামরিক বিমান ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন। সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া, জাসদের একাংশের সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার, একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি শাহরিয়ার কবির, সেক্টরস কমান্ডার ফোরামের মহাসচিব হারুন হাবিব, জাসদ স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আনোয়ার হোসেন জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি শফিকুর রহমান, গণতন্ত্রী পার্টির সাধারণ সম্পাদক ডা. শাহদাত হোসেন প্রমুখ।

Comments

comments

সর্বশেষ আপডেট



এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সদস্য মণ্ডলী : –

উপদেষ্টা : ডা: রফিকুল ইসলাম বিজলী
আইন উপদেষ্টা : এ্যড জামাল হোসেন মুন্না
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুজাহিদুল ইসলাম নাঈম
সম্পাদক ও প্রকাশক : মাহির শাহরিয়ার শিশির
বার্তা সম্পাদক : সাহিদুল ইসলাম পলাশ ভুইয়া
নির্বাহী সম্পাদক : মনেম শাহরিয়ার শাওন

যোগাযোগ : –

সম্পাদকীয় কার্যালয় : ২৩/৩, তোপখানা রোড,
৪র্থ তালা, (পাক্ষিক অনিয়ম এর পাশে) ঢাকা-১০০০
09602111463, 01911717599, 01611354077
fb.com/bartakantho | Info@Bartakantho.com
প্রকাশনা : সানশাইন ক্রিয়েটিভ মিডিয়া লিমিটেড

Design & Devaloped BY Creation IT BD Limited