রাত ৯:৪৫ | বৃহস্পতিবার | ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং | ৬ই আশ্বিন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

কানে এক মিনিট চাপ দিলেই সেরে যাবে জটিল রোগ!

ডেস্কঃ ওষুধ না খেয়ে শুধু কানে এক মিনিট চাপ দিলেই পিঠ এবং কাঁধ ব্যথা, জয়েন্টে ব্যথা, হজম সমস্যা ও হৃদরোগের মতো জটিল রোগ কমে যাবে! এ কথা শুনে হয়তো আপনার মনে প্রশ্ন আসতে পারে, এমনটা আবার হয় নাকি? সব কিছুতে যুক্তি খোঁজা আমাদের জন্মগত অভ্যাস হলেও পৃথিবীতে এমন অনেক কিছু রয়েছে যা বাস্তবে কার্যকরী হলেও যুক্তির দুনিয়ায় এদের তেমন গুরুত্ব দেয়া হয় না।

বিশেষজ্ঞদের মতে, আদিকাল থেকে সারা বিশ্বে অ্যাকুপ্রেসার (Acupressure) পদ্ধতি বেশ জনপ্রয়িতা পেলেও আমাদের দেশে সেভাবে এই চিকিৎসা শাস্ত্রের প্রসার ঘটেনি। কিন্তু বাস্তবে একাধিক রোগের উপসমে এই পদ্ধতি দারুন কাজে আসে।

এই পদ্ধতিতে শরীরে কিছু বিশেষ অংশে চাপ প্রয়গের মাধ্যমে চিকিৎসা করা হয়ে থাকে। বিশেষ করে কানের পিঠে নিচের অংশ থেকে উপর পর্যন্ত ছয়টি পয়েন্ট করে নিন।

কানে এই প্রেসার পয়েন্টের সঙ্গে শরীরের বিভিন্ন অংশের যোগ রয়েছে। এই অংশগুলিতে নির্দিষ্ট পদ্ধতিতে চাপ দিলে শরীরের ওইসব অংশে যেসব সমস্যা হচ্ছে তা ধীরে ধীরে কমে যাবে। আর কেমনভাবে এমনটা সম্ভব হয় তা নিম্নে আলোচনা করা হলো;

কানের পয়েন্ট ১: প্রথম পয়েন্টের সঙ্গে পিঠ এবং কাঁধের যোগ রয়েছে। তাই তো এই জায়গায় ক্লিপ অথবা হাত দিয়ে মাত্র ৬০ সেকেন্ড (এক মিনিট) চাপ দিয়ে রাখলেই পিঠ এবং কাঁধের ব্যাথা কমে যাবে। প্রতিদিন এমনটা করলে তবেই ভালো ফল পাওয়া যাবে।

এছাড়া আপনি সারা দিন অফিসে চেয়ারে বসে কাজ করেন। এতে পিঠে খুব যন্ত্রণা হয়। এই ধরনের কষ্ট কমাতেও এই পদ্ধতি দারুন কাজে আসে।

পয়েন্ট ২: অনেক সময়ই নানা কারণে অস্বস্তিবোধ হতে থাকে। মনে হয় যেন শরীরের ভিতরে কেমন উথাল পাতাল হচ্ছে। এ সময় দ্বিতীয় পয়েন্টে একইভাবে চাপ দিন দেখবেন শরীরে চলতে থাকা অস্বস্তিবোধ কমে যাবে। এক্ষেত্রে অ্যাকুপ্রেসারের এই পদ্ধতিটি বেশ কাজে আসে।

পয়েন্ট ৩: কানের এই অংশের সঙ্গে আমাদের জয়েন্টের সম্পর্ক রয়েছে। তাই এই অংশে সামান্য চাপ দিলে জয়েন্টের অনেক সমস্যাই কমে যায়। বিশেষত যারা জয়েন্টর ব্যথায় মাঝে মধ্যেই কাবু থাকেন, তারা এই পদ্ধতিটির সাহায্য নিতে পারেন।

পয়েন্ট ৪: সাইনাসের সমস্যা থাকলে কানের এই অংশে প্রতিদিন ৬০ সেকেন্ড করে চাপ দিন। এমনটা করলে অল্প দিনেই আপনার কষ্ট কমতে শুরু করবে।

এছাড়া গলার একাধিক সমস্যা কমাতেও কানের এই অংশে চাপ দিলে ভালো ফল পাওয়া যায়। শুধু তাই নয়, নাক বন্ধের কারণে ঘুম না আসলে শুয়ে শুয়েই এই পদ্ধতিটিকে কাজে লাগান। দেখবেন খুব আরাম পাবেন।

পয়েন্ট ৫: কানের এই অংশের সঙ্গে হজম ক্ষমতার যোগ রয়েছে। তাই তো যারা বদহজমের সমস্যায় ভুগছেন তারা প্রতিদিন ক্লিপের সাহায্যে কানের ৫ নং অংশে ৬০ সেকেন্ড প্রেসার দিয়ে রাখুন। এমনটা করলে দেখবেন বদহজমসহ একাদিক হজম সংক্রান্ত সমস্যা কমে যেতে শুরু করবে।

পয়েন্ট ৬: হার্ট এবং মস্তিষ্কের সঙ্গে যোগ রয়েছে এই ৬নং অংশের। তাই তো এখানে চাপ প্রয়োগ করলে মাইগ্রেন এবং মাথার যন্ত্রণা কমতে শুরু করবে। শুধু তাই নয়, নিয়মিত এই পদ্ধতিটি অনুসরণ করা করলে হৃদরোগের সমস্যা থাকলে তার উন্নতি ঘটে।

Comments

comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» মিরপুরে ৩টি ফার্মেসি সিলগালা

» আলফাডাঙ্গায় ছাত্রলীগ নেতা আশিকের মাগফেরাত কামনায় দোয়া

» মানবিক সাহায্যের আবেদন

» মাইজদীতে লাইসেন্স বিহীন ফার্মেসিতে জরিমানা ও মেয়াদোত্তীর্ণ ঔষধ জব্দ

» আলফাডাঙ্গায় সরকারের সাফল্য নিয়ে আলোচনা সভা

» রোহিঙ্গাদের হত্যার প্রতিবাদে আলফাডাঙ্গায় বিক্ষোভ

» আলফাডাঙ্গায় ইয়াবাসহ চার যুবক আটক

» ৭ ঘন্টা ধরে বিদ্যুৎ বিহীন আলফাডাংগাবাসী অন্ধকারে ও গরমে অতিষ্ঠ।

» শিগগির চালু হচ্ছে এভিয়েশন বিশ্ববিদ্যালয়: মেনন

» আলফাডাঙ্গার দলিল জালিয়াত চক্রের হোতা মোক্তার হোসেন,

» আলফাডাঙ্গা উপজেলার উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা জনাব মোঃ আজহারুল ইসলাম এর বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে।

» শ্রীবরদীতে ভেজাল ঔষুধ জব্দ ॥ ৪ ফার্মেসীর জরিমানা

» সাংসদ আব্দুর রহমানের একান্ত প্রচেস্টায় জাতীয়করণ হলো আলফাডাঙ্গা এ জেড পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়

» ঘন ঘন লোডশেডিংয়ের প্রতিবাদে আলফাডাঙ্গায় মানববন্ধন

» কাশিয়ানীতে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে দোয়া ও কাঙ্গালী ভোজ।

সদস্য মণ্ডলী : –

উপদেষ্টা : ডা: রফিকুল ইসলাম বিজলী
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুজাহিদুল ইসলাম নাঈম
সম্পাদক ও প্রকাশক : মাহির শাহরিয়ার শিশির
বার্তা সম্পাদক : সাহিদুল ইসলাম পলাশ ভুইয়া
নির্বাহী সম্পাদক : মনেম শাহরিয়ার শাওন

যোগাযোগ : –

সম্পাদকীয় কার্যালয় : ২৩/৩, তোপখানা রোড,
৪র্থ তালা, (পাক্ষিক অনিয়ম এর পাশে) ঢাকা-১০০০
09602111463, 01911717599, 01611354077
fb.com/bartakantho | Info@Bartakantho.com
প্রকাশনা : সানশাইন ক্রিয়েটিভ মিডিয়া লিমিটেড

Design & Devaloped BY Creation IT BD Limited

রাত ৯:৪৫, ,

কানে এক মিনিট চাপ দিলেই সেরে যাবে জটিল রোগ!

ডেস্কঃ ওষুধ না খেয়ে শুধু কানে এক মিনিট চাপ দিলেই পিঠ এবং কাঁধ ব্যথা, জয়েন্টে ব্যথা, হজম সমস্যা ও হৃদরোগের মতো জটিল রোগ কমে যাবে! এ কথা শুনে হয়তো আপনার মনে প্রশ্ন আসতে পারে, এমনটা আবার হয় নাকি? সব কিছুতে যুক্তি খোঁজা আমাদের জন্মগত অভ্যাস হলেও পৃথিবীতে এমন অনেক কিছু রয়েছে যা বাস্তবে কার্যকরী হলেও যুক্তির দুনিয়ায় এদের তেমন গুরুত্ব দেয়া হয় না।

বিশেষজ্ঞদের মতে, আদিকাল থেকে সারা বিশ্বে অ্যাকুপ্রেসার (Acupressure) পদ্ধতি বেশ জনপ্রয়িতা পেলেও আমাদের দেশে সেভাবে এই চিকিৎসা শাস্ত্রের প্রসার ঘটেনি। কিন্তু বাস্তবে একাধিক রোগের উপসমে এই পদ্ধতি দারুন কাজে আসে।

এই পদ্ধতিতে শরীরে কিছু বিশেষ অংশে চাপ প্রয়গের মাধ্যমে চিকিৎসা করা হয়ে থাকে। বিশেষ করে কানের পিঠে নিচের অংশ থেকে উপর পর্যন্ত ছয়টি পয়েন্ট করে নিন।

কানে এই প্রেসার পয়েন্টের সঙ্গে শরীরের বিভিন্ন অংশের যোগ রয়েছে। এই অংশগুলিতে নির্দিষ্ট পদ্ধতিতে চাপ দিলে শরীরের ওইসব অংশে যেসব সমস্যা হচ্ছে তা ধীরে ধীরে কমে যাবে। আর কেমনভাবে এমনটা সম্ভব হয় তা নিম্নে আলোচনা করা হলো;

কানের পয়েন্ট ১: প্রথম পয়েন্টের সঙ্গে পিঠ এবং কাঁধের যোগ রয়েছে। তাই তো এই জায়গায় ক্লিপ অথবা হাত দিয়ে মাত্র ৬০ সেকেন্ড (এক মিনিট) চাপ দিয়ে রাখলেই পিঠ এবং কাঁধের ব্যাথা কমে যাবে। প্রতিদিন এমনটা করলে তবেই ভালো ফল পাওয়া যাবে।

এছাড়া আপনি সারা দিন অফিসে চেয়ারে বসে কাজ করেন। এতে পিঠে খুব যন্ত্রণা হয়। এই ধরনের কষ্ট কমাতেও এই পদ্ধতি দারুন কাজে আসে।

পয়েন্ট ২: অনেক সময়ই নানা কারণে অস্বস্তিবোধ হতে থাকে। মনে হয় যেন শরীরের ভিতরে কেমন উথাল পাতাল হচ্ছে। এ সময় দ্বিতীয় পয়েন্টে একইভাবে চাপ দিন দেখবেন শরীরে চলতে থাকা অস্বস্তিবোধ কমে যাবে। এক্ষেত্রে অ্যাকুপ্রেসারের এই পদ্ধতিটি বেশ কাজে আসে।

পয়েন্ট ৩: কানের এই অংশের সঙ্গে আমাদের জয়েন্টের সম্পর্ক রয়েছে। তাই এই অংশে সামান্য চাপ দিলে জয়েন্টের অনেক সমস্যাই কমে যায়। বিশেষত যারা জয়েন্টর ব্যথায় মাঝে মধ্যেই কাবু থাকেন, তারা এই পদ্ধতিটির সাহায্য নিতে পারেন।

পয়েন্ট ৪: সাইনাসের সমস্যা থাকলে কানের এই অংশে প্রতিদিন ৬০ সেকেন্ড করে চাপ দিন। এমনটা করলে অল্প দিনেই আপনার কষ্ট কমতে শুরু করবে।

এছাড়া গলার একাধিক সমস্যা কমাতেও কানের এই অংশে চাপ দিলে ভালো ফল পাওয়া যায়। শুধু তাই নয়, নাক বন্ধের কারণে ঘুম না আসলে শুয়ে শুয়েই এই পদ্ধতিটিকে কাজে লাগান। দেখবেন খুব আরাম পাবেন।

পয়েন্ট ৫: কানের এই অংশের সঙ্গে হজম ক্ষমতার যোগ রয়েছে। তাই তো যারা বদহজমের সমস্যায় ভুগছেন তারা প্রতিদিন ক্লিপের সাহায্যে কানের ৫ নং অংশে ৬০ সেকেন্ড প্রেসার দিয়ে রাখুন। এমনটা করলে দেখবেন বদহজমসহ একাদিক হজম সংক্রান্ত সমস্যা কমে যেতে শুরু করবে।

পয়েন্ট ৬: হার্ট এবং মস্তিষ্কের সঙ্গে যোগ রয়েছে এই ৬নং অংশের। তাই তো এখানে চাপ প্রয়োগ করলে মাইগ্রেন এবং মাথার যন্ত্রণা কমতে শুরু করবে। শুধু তাই নয়, নিয়মিত এই পদ্ধতিটি অনুসরণ করা করলে হৃদরোগের সমস্যা থাকলে তার উন্নতি ঘটে।

Comments

comments

সর্বশেষ আপডেট



এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সদস্য মণ্ডলী : –

উপদেষ্টা : ডা: রফিকুল ইসলাম বিজলী
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুজাহিদুল ইসলাম নাঈম
সম্পাদক ও প্রকাশক : মাহির শাহরিয়ার শিশির
বার্তা সম্পাদক : সাহিদুল ইসলাম পলাশ ভুইয়া
নির্বাহী সম্পাদক : মনেম শাহরিয়ার শাওন

যোগাযোগ : –

সম্পাদকীয় কার্যালয় : ২৩/৩, তোপখানা রোড,
৪র্থ তালা, (পাক্ষিক অনিয়ম এর পাশে) ঢাকা-১০০০
09602111463, 01911717599, 01611354077
fb.com/bartakantho | Info@Bartakantho.com
প্রকাশনা : সানশাইন ক্রিয়েটিভ মিডিয়া লিমিটেড

Design & Devaloped BY Creation IT BD Limited