রাত ৯:৪৭ | বৃহস্পতিবার | ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং | ৬ই আশ্বিন, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

আপনার ভুলেই হারাতে পারেন আপনার দৃষ্টিশক্তি, এই লক্ষ্মণগুলো দেখলেই চোখ নিয়ে সাবধান হোন!

আমাদের শরীরের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ও জটিল অঙ্গ হল চোখ। চোখের সঠিক যত্ন নেওয়া তাই বিশেষভাবে দরকার।

কর্মব্যস্ত দিনে চোখে বেশি চাপ পড়ে। কারণ, কখনো কম্পিউটারের সামনে, কখনো টেলিভিশনের সামনে বা কখনো মনোযোগ দিয়ে কিছু পড়া হয়। এর মধ্যে চোখের বিশ্রামের কথা ভাবার অবকাশ হয় না। এ ছাড়া চোখ সাজানোর জন্য কত কিছুই তো করা হয়। কিন্তু বাড়ি ফিরে ভালোভাবে চোখ কি পরিষ্কার করা হয়?

চোখে সামান্য অসুবিধা হলেই সতর্ক হওয়া উচিত। কারণ আপনার অযত্নেই হারিয়ে যেতে পারে আপনার দৃষ্টিশক্তি।

এমন কিছু কিছু লক্ষ্মণ আছে, যা বুঝিয়ে দেবে আপনার চোখ ক্লান্ত কি না-

eye

১) লাল হয়ে যাওয়া- আপনি যদি দীর্ঘক্ষণ কোনও কম্পিউটার স্ক্রিনের দিকে তাকিয়ে বসে থাকেন, তাহলে আপনার চোখ শুকিয়ে যেতে পারে। তখন লাল হয়ে যায় চোখ। জ্বালা জ্বালা করে।

২) চোখ দিয়ে জল পড়া- অনেকসময় চোখ দিয়ে জলও পড়তে পারে। তাহলে বুঝবেন আপনার চোখ ক্লান্ত। তার বিশ্রাম প্রয়োজন।

৩) চোখে যন্ত্রণা- চোখের অতিরিক্ত পরিশ্রম হলে, ঠিকমত ঘুম না হলে, চোখে যন্ত্রণা হয়।

৪) ডবল ভিশন বা চোখে ঘোলা দেখা- আপনি যদি সবকিছুই ঘোলা ঘোলা দেখেন, তাহলে অবিলম্বে সাবধান হোন।
চোখ অতিরিক্ত ক্লান্ত হলে এমনটা হয়।

বড় ধরনের সমস্যা দেখা দিলে অবশ্যই চিকিৎসকের শরণাপন্ন হতে হবে। তবে প্রতিদিন যত্ন নিলে ছোট সমস্যাগুলো এড়ানো যায়। অফিসে বা বাড়িতে বসেই এ যত্ন নিতে পারেন।

চোখের উপযোগী ব্যায়াম নিয়মিত করা উচিত। মাথা সোজা রেখে চোখ হাতের ডান থেকে বাঁয়ে ও বাঁ থেকে ডানে ১০ বার ঘোরাতে হবে। প্রতিদিন সম্ভব না হলে সপ্তাহে অন্তত তিন দিন করা যেতে পারে। রোদে বের হওয়ার আগে সানস্ক্রিন ক্রিম ব্যবহার করুন। আর সানগ্লাস পরতে ভুলবেন না। সঙ্গে পুষ্টিকর খাবার খেতে হবে। চোখের ক্লান্তি দূর করতে প্রকৃতির সবুজ রঙের জুড়ি নেই। একটু সময় পেলে সবুজে ঘেরা কোথা থেকে ঘুরে আসুন। মনও ভালো থাকবে, চোখও আরাম পাবে।

গরমে চোখের সঠিক যত্নে করণীয়

তাপমাত্রা বৃদ্ধির সাথে সাথে চোখের যত্ন নেয়া জরুরী। কারণ, সূর্যের রশ্মি চোখের জন্য অনেক ক্ষতিকর। এর ফলে ত্বকের ক্ষতি হবার পাশাপাশি চোখেরও বিভিন্ন ধরণের সমস্যা দেখা দেয়। তাই, চোখের সঠিকভাবে যত্ন নিতে হবে। চোখের যত্ন নিতে যে সকল উপায় অবলম্বন করবেন-

১. সান গ্লাস সবসময় সাথেই রাখুন:
সানস্ক্রিন ক্রিম যেমন ত্বককে রক্ষা করে তেমনি সান গ্লাস চোখকে রক্ষা করে।যেসব সান গ্লাস সূর্যের অতি বেগুনি রশ্মিকে মোকাবেলা করতে পারে, সে সকল সান গ্লাস পরিধান করুন।সূর্যের অতি বেগুনি রশ্মি রেটিনার ক্ষতি করে, চোখে ছানি পরে এবং চোখের আরও বিভিন্ন ধরণের সমস্যা করে। গ্রীষ্মের জন্য ফ্রেমে বন্দী যে বড় সানগ্লাস আছে তা ব্যবহার করা ভাল। এটি সূর্যের আলো ও ধূলিকণা হতে চোখকে রক্ষা করে। এই গরমে আপনি যদি কোন পাহাড়ি অঞ্চলে ভ্রমণে যান। তাহলে সূর্যের প্রখর তাপে আপনার চোখে লাল ভাব বিরাজ করতে পারে এবং আপনার কর্নিয়াতেও সমস্যা হতে পারে। এর ফলে মাথা ব্যথার সৃষ্টি হতে পারে। তাই, সঠিকভাবে সানগ্লাস ব্যবহার করে চোখকে এ সকল ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা করুন।

২. সুইমিং পুলে চোখের সুরক্ষা:
গ্রীষ্মের সময়ে অনেকেই সুইমিং পুলে সময় কাটতে পছন্দ করেন। কিন্তু, এ সময় অবশ্যই আপনার গগলস ব্যবহার করুন। গ্রীষ্মে চামড়ার সংক্রমণের প্রকোপ বৃদ্ধি পায়। সকলেই সুইমিং পুলের পানি বিশুদ্ধ রাখার জন্য ক্লোরিন এবং অন্যান্য রাসায়নিক পদার্থের পরিমাণ বৃদ্ধি করে। এ সকল রাসায়নিক পদার্থ চোখের জন্য অনেক ক্ষতিকর। তাই, পুলে অবশ্যই গগলস এর ব্যবহার করুন। পুল থেকে বের হয়ে ফ্রেশ পানি দিয়ে অবশ্যই চোখ ধুয়ে ফেলুন।

৩. লুব্রিকেটিং চোখের ড্রপ:
গ্রীষ্মকালে শুধু আপনার ত্বকই নয়, সাথে সাথে চোখও শুকিয়ে যায়।বছরের এই সময়ে লুব্রিকেটিং চোখের ড্রপ ব্যবহার করা শ্রেয়। ড্রপটি অবশ্যই ঘরে সংরক্ষন করতে হবে।

৪. এসি বরাবর বসবেন না:
আপনি যখন কোন এসি রুমে থাকবেন, তখন অবশ্যই খেয়াল রাখবেন আপনার চোখে যেন এসির বাতাস সরাসরি না লাগে। এর ফলে চোখের সংবেদনশীলতা বৃদ্ধি পায় এবং চোখের পানি শুকিয়ে যাবার সম্ভাবনা থাকে।

৫. প্রতিরক্ষামূলক স্পষ্ট চশমা পড়েন:
গ্রীষ্মের ছুটিতে বহিরঙ্গন কার্যক্রম এর অভাব থাকে না। তাই, আপনি যদি কোন ক্যাম্পিং এ যেয়ে সাইকেল চালান, রান্না করেন, অশ্ব চালনা ইত্যাদি করেন তাহলে অবশ্যই স্পষ্ট চশমা পড়ুন।

অরক্ষিতভাবে সূর্যের নিচে যাবার কারনে চোখের ছানি রোগের ঝুঁকি বৃদ্ধি পায়। এর ফলে দীর্ঘস্থায়ীভাবে চোখে লাল বা হলুদভাব হতে পারে। তাই, দিনের বেলা বের হবার সময় অবশ্যই সানগ্লাস পরিধান করুন।

Comments

comments

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



» মিরপুরে ৩টি ফার্মেসি সিলগালা

» আলফাডাঙ্গায় ছাত্রলীগ নেতা আশিকের মাগফেরাত কামনায় দোয়া

» মানবিক সাহায্যের আবেদন

» মাইজদীতে লাইসেন্স বিহীন ফার্মেসিতে জরিমানা ও মেয়াদোত্তীর্ণ ঔষধ জব্দ

» আলফাডাঙ্গায় সরকারের সাফল্য নিয়ে আলোচনা সভা

» রোহিঙ্গাদের হত্যার প্রতিবাদে আলফাডাঙ্গায় বিক্ষোভ

» আলফাডাঙ্গায় ইয়াবাসহ চার যুবক আটক

» ৭ ঘন্টা ধরে বিদ্যুৎ বিহীন আলফাডাংগাবাসী অন্ধকারে ও গরমে অতিষ্ঠ।

» শিগগির চালু হচ্ছে এভিয়েশন বিশ্ববিদ্যালয়: মেনন

» আলফাডাঙ্গার দলিল জালিয়াত চক্রের হোতা মোক্তার হোসেন,

» আলফাডাঙ্গা উপজেলার উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা জনাব মোঃ আজহারুল ইসলাম এর বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে।

» শ্রীবরদীতে ভেজাল ঔষুধ জব্দ ॥ ৪ ফার্মেসীর জরিমানা

» সাংসদ আব্দুর রহমানের একান্ত প্রচেস্টায় জাতীয়করণ হলো আলফাডাঙ্গা এ জেড পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়

» ঘন ঘন লোডশেডিংয়ের প্রতিবাদে আলফাডাঙ্গায় মানববন্ধন

» কাশিয়ানীতে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে দোয়া ও কাঙ্গালী ভোজ।

সদস্য মণ্ডলী : –

উপদেষ্টা : ডা: রফিকুল ইসলাম বিজলী
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুজাহিদুল ইসলাম নাঈম
সম্পাদক ও প্রকাশক : মাহির শাহরিয়ার শিশির
বার্তা সম্পাদক : সাহিদুল ইসলাম পলাশ ভুইয়া
নির্বাহী সম্পাদক : মনেম শাহরিয়ার শাওন

যোগাযোগ : –

সম্পাদকীয় কার্যালয় : ২৩/৩, তোপখানা রোড,
৪র্থ তালা, (পাক্ষিক অনিয়ম এর পাশে) ঢাকা-১০০০
09602111463, 01911717599, 01611354077
fb.com/bartakantho | Info@Bartakantho.com
প্রকাশনা : সানশাইন ক্রিয়েটিভ মিডিয়া লিমিটেড

Design & Devaloped BY Creation IT BD Limited

রাত ৯:৪৭, ,

আপনার ভুলেই হারাতে পারেন আপনার দৃষ্টিশক্তি, এই লক্ষ্মণগুলো দেখলেই চোখ নিয়ে সাবধান হোন!

আমাদের শরীরের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ও জটিল অঙ্গ হল চোখ। চোখের সঠিক যত্ন নেওয়া তাই বিশেষভাবে দরকার।

কর্মব্যস্ত দিনে চোখে বেশি চাপ পড়ে। কারণ, কখনো কম্পিউটারের সামনে, কখনো টেলিভিশনের সামনে বা কখনো মনোযোগ দিয়ে কিছু পড়া হয়। এর মধ্যে চোখের বিশ্রামের কথা ভাবার অবকাশ হয় না। এ ছাড়া চোখ সাজানোর জন্য কত কিছুই তো করা হয়। কিন্তু বাড়ি ফিরে ভালোভাবে চোখ কি পরিষ্কার করা হয়?

চোখে সামান্য অসুবিধা হলেই সতর্ক হওয়া উচিত। কারণ আপনার অযত্নেই হারিয়ে যেতে পারে আপনার দৃষ্টিশক্তি।

এমন কিছু কিছু লক্ষ্মণ আছে, যা বুঝিয়ে দেবে আপনার চোখ ক্লান্ত কি না-

eye

১) লাল হয়ে যাওয়া- আপনি যদি দীর্ঘক্ষণ কোনও কম্পিউটার স্ক্রিনের দিকে তাকিয়ে বসে থাকেন, তাহলে আপনার চোখ শুকিয়ে যেতে পারে। তখন লাল হয়ে যায় চোখ। জ্বালা জ্বালা করে।

২) চোখ দিয়ে জল পড়া- অনেকসময় চোখ দিয়ে জলও পড়তে পারে। তাহলে বুঝবেন আপনার চোখ ক্লান্ত। তার বিশ্রাম প্রয়োজন।

৩) চোখে যন্ত্রণা- চোখের অতিরিক্ত পরিশ্রম হলে, ঠিকমত ঘুম না হলে, চোখে যন্ত্রণা হয়।

৪) ডবল ভিশন বা চোখে ঘোলা দেখা- আপনি যদি সবকিছুই ঘোলা ঘোলা দেখেন, তাহলে অবিলম্বে সাবধান হোন।
চোখ অতিরিক্ত ক্লান্ত হলে এমনটা হয়।

বড় ধরনের সমস্যা দেখা দিলে অবশ্যই চিকিৎসকের শরণাপন্ন হতে হবে। তবে প্রতিদিন যত্ন নিলে ছোট সমস্যাগুলো এড়ানো যায়। অফিসে বা বাড়িতে বসেই এ যত্ন নিতে পারেন।

চোখের উপযোগী ব্যায়াম নিয়মিত করা উচিত। মাথা সোজা রেখে চোখ হাতের ডান থেকে বাঁয়ে ও বাঁ থেকে ডানে ১০ বার ঘোরাতে হবে। প্রতিদিন সম্ভব না হলে সপ্তাহে অন্তত তিন দিন করা যেতে পারে। রোদে বের হওয়ার আগে সানস্ক্রিন ক্রিম ব্যবহার করুন। আর সানগ্লাস পরতে ভুলবেন না। সঙ্গে পুষ্টিকর খাবার খেতে হবে। চোখের ক্লান্তি দূর করতে প্রকৃতির সবুজ রঙের জুড়ি নেই। একটু সময় পেলে সবুজে ঘেরা কোথা থেকে ঘুরে আসুন। মনও ভালো থাকবে, চোখও আরাম পাবে।

গরমে চোখের সঠিক যত্নে করণীয়

তাপমাত্রা বৃদ্ধির সাথে সাথে চোখের যত্ন নেয়া জরুরী। কারণ, সূর্যের রশ্মি চোখের জন্য অনেক ক্ষতিকর। এর ফলে ত্বকের ক্ষতি হবার পাশাপাশি চোখেরও বিভিন্ন ধরণের সমস্যা দেখা দেয়। তাই, চোখের সঠিকভাবে যত্ন নিতে হবে। চোখের যত্ন নিতে যে সকল উপায় অবলম্বন করবেন-

১. সান গ্লাস সবসময় সাথেই রাখুন:
সানস্ক্রিন ক্রিম যেমন ত্বককে রক্ষা করে তেমনি সান গ্লাস চোখকে রক্ষা করে।যেসব সান গ্লাস সূর্যের অতি বেগুনি রশ্মিকে মোকাবেলা করতে পারে, সে সকল সান গ্লাস পরিধান করুন।সূর্যের অতি বেগুনি রশ্মি রেটিনার ক্ষতি করে, চোখে ছানি পরে এবং চোখের আরও বিভিন্ন ধরণের সমস্যা করে। গ্রীষ্মের জন্য ফ্রেমে বন্দী যে বড় সানগ্লাস আছে তা ব্যবহার করা ভাল। এটি সূর্যের আলো ও ধূলিকণা হতে চোখকে রক্ষা করে। এই গরমে আপনি যদি কোন পাহাড়ি অঞ্চলে ভ্রমণে যান। তাহলে সূর্যের প্রখর তাপে আপনার চোখে লাল ভাব বিরাজ করতে পারে এবং আপনার কর্নিয়াতেও সমস্যা হতে পারে। এর ফলে মাথা ব্যথার সৃষ্টি হতে পারে। তাই, সঠিকভাবে সানগ্লাস ব্যবহার করে চোখকে এ সকল ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা করুন।

২. সুইমিং পুলে চোখের সুরক্ষা:
গ্রীষ্মের সময়ে অনেকেই সুইমিং পুলে সময় কাটতে পছন্দ করেন। কিন্তু, এ সময় অবশ্যই আপনার গগলস ব্যবহার করুন। গ্রীষ্মে চামড়ার সংক্রমণের প্রকোপ বৃদ্ধি পায়। সকলেই সুইমিং পুলের পানি বিশুদ্ধ রাখার জন্য ক্লোরিন এবং অন্যান্য রাসায়নিক পদার্থের পরিমাণ বৃদ্ধি করে। এ সকল রাসায়নিক পদার্থ চোখের জন্য অনেক ক্ষতিকর। তাই, পুলে অবশ্যই গগলস এর ব্যবহার করুন। পুল থেকে বের হয়ে ফ্রেশ পানি দিয়ে অবশ্যই চোখ ধুয়ে ফেলুন।

৩. লুব্রিকেটিং চোখের ড্রপ:
গ্রীষ্মকালে শুধু আপনার ত্বকই নয়, সাথে সাথে চোখও শুকিয়ে যায়।বছরের এই সময়ে লুব্রিকেটিং চোখের ড্রপ ব্যবহার করা শ্রেয়। ড্রপটি অবশ্যই ঘরে সংরক্ষন করতে হবে।

৪. এসি বরাবর বসবেন না:
আপনি যখন কোন এসি রুমে থাকবেন, তখন অবশ্যই খেয়াল রাখবেন আপনার চোখে যেন এসির বাতাস সরাসরি না লাগে। এর ফলে চোখের সংবেদনশীলতা বৃদ্ধি পায় এবং চোখের পানি শুকিয়ে যাবার সম্ভাবনা থাকে।

৫. প্রতিরক্ষামূলক স্পষ্ট চশমা পড়েন:
গ্রীষ্মের ছুটিতে বহিরঙ্গন কার্যক্রম এর অভাব থাকে না। তাই, আপনি যদি কোন ক্যাম্পিং এ যেয়ে সাইকেল চালান, রান্না করেন, অশ্ব চালনা ইত্যাদি করেন তাহলে অবশ্যই স্পষ্ট চশমা পড়ুন।

অরক্ষিতভাবে সূর্যের নিচে যাবার কারনে চোখের ছানি রোগের ঝুঁকি বৃদ্ধি পায়। এর ফলে দীর্ঘস্থায়ীভাবে চোখে লাল বা হলুদভাব হতে পারে। তাই, দিনের বেলা বের হবার সময় অবশ্যই সানগ্লাস পরিধান করুন।

Comments

comments

সর্বশেষ আপডেট



এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সদস্য মণ্ডলী : –

উপদেষ্টা : ডা: রফিকুল ইসলাম বিজলী
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুজাহিদুল ইসলাম নাঈম
সম্পাদক ও প্রকাশক : মাহির শাহরিয়ার শিশির
বার্তা সম্পাদক : সাহিদুল ইসলাম পলাশ ভুইয়া
নির্বাহী সম্পাদক : মনেম শাহরিয়ার শাওন

যোগাযোগ : –

সম্পাদকীয় কার্যালয় : ২৩/৩, তোপখানা রোড,
৪র্থ তালা, (পাক্ষিক অনিয়ম এর পাশে) ঢাকা-১০০০
09602111463, 01911717599, 01611354077
fb.com/bartakantho | Info@Bartakantho.com
প্রকাশনা : সানশাইন ক্রিয়েটিভ মিডিয়া লিমিটেড

Design & Devaloped BY Creation IT BD Limited